পেকুয়ায় লকডাউনে এবং পবিত্র রমজান মাসেও থেমে নেই মদ বেপারীর মদ বিক্রি

বিশেষ প্রতিবেদক;
কক্সবাজারের পেকুয়ায় দেশে বিরাজমান লকডাউনে এবং পবিত্র রমজান মাসেও থেমে নেই সদরের মিয়া পাড়ার জসিমের অভিযোগ স্থানীয় সচেতন মহলের।অভিযুক্ত মদ ব্যবসায়ী সদরের মিয়া পাড়া এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে মোঃ জসিম।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয়রা জানান বিগত বেশ কয়েক বছর ধরে সে বীরদর্পে প্রকাশ্যে মদ বিক্রি করে আসছে। তার সাথে রাজনৈতিক নেতাদের দহরম-মহরম সম্পর্কে থাকার দরুণ তার বিরুদ্ধে কেউ প্রকাশ্যে মুখ খুলতে পারে না।কেউ সাহস করে বললে তার উপর নেমে অমানুসিক নির্যাতন।তাই কেউ তার বিরুদ্ধে অভিযোগ  কিংবা মুখ খুলতে পারেনা।তার এধরণের অনৈতিক কর্মকান্ডের কারণে বিক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেছে এলাকাবাসী।অবস্থাদৃষ্টে মনে হয় যে কোন সময় বড় ধরণের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের হতে পারে বলে স্থানীয় সচেতন মহল মনে করেন।প্রতিনিয়তই দিনে কিংবা রাতে দেদারছে বিক্রি করছে মদ ও ইয়াবা।যেন লাইসেন্সধারী মাদক ব্যবসায়ী।বিগত বছর দুয়েক আগে তার বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলাও হয়েছিল।ঐ মামলায় সে জামিন নিয়ে এসে ফের মাদক বিকি-কিনি করে চলছে।বৈশ্যিক মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে পেকুয়া থানার পুলিশ সাদারণ মানুষদের ঘরে ফেরাতে এবং আক্রান্ত রোগীদের সহযোগিতা প্রদানে ব্যস্ত থাকার সুযোগে হরহামেশাই বিক্রি করে যাচ্ছে ইয়াবা ও মদ।এ বিষয়ে পেকুয়া থানার ওসি কামরুল বলেন মাদকের বিরুদ্ধে পুলিশ জিরো টলারেন্স নীতিতে কাজ করে যাচ্ছে। চলমান মাদক বিরোধি অভিযানে বেশ কজন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে জেলে পাঠানো হয়েছে।অভিযান চলাকালীন সময়ে বৈশ্বিক মহামারির কারণে পুলিশ ব্যস্ত সময় পার করছে। তাই হয়ত এ সুযোগে মাদক ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া হয়ে উঠতে পারে।এরপরেও ঐ মাদক ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে  দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *