রামুর গর্জনিয়া বাজার ইজারা পেলেন মাদক ব্যবসায়ী!

এম ডি মনছুর আলম মুন্না, কক্সবাজার

রামুর বৃহৎ গর্জনিয়া বাজারের ইজারা বিপুল টাকায় বাগিয়ে নিয়েছেন আবদুর রহমান নামের এক মাদক ব্যবসায়ী। গত (৮ জুন) রামু উপজেলা প্রশাসনের হাট বাজার ইজারায় প্রকৃত ইজারাদের হতাশ করে ১ কোটি ১৫ লাখ টাকায় বাজারটি নতুনভাবে ইজারা নেন তিনি। অথচ বিগত বছর এ বাজার ইজারা দেয়া হয় ৪৩ লাখ টাকায়। এত বিশাল অংকে বাজার ইজারা নেয়া আবদুর রহমান চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ি বলে জানিয়েছেন গর্জনিয়া বাজারের একাধিক ব্যবসায়ি।
তথ্যানুসন্ধানে জানা গেছে, আবদুর রহমানের বিরুদ্ধে নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় মাদক আইনে মামলা রয়েছে। ২০১৮ সালের ২ ফেব্ররুয়ারি দায়েরকৃত এ মামলায় ৪ নং অভিযুক্ত আবদুর রহমান। যার মামলা নং জি আর ৩৪/১৮। এদিকে বিপুল অংকের অর্থে বাজার ইজারা নেয়ার খবরে ব্যবসায়িরা আতংকিত হয়ে পড়েছেন। ব্যবসায়িদের দাবি এ মোটা অংকের অর্থ বাজারের ছোট-বড় ব্যবসায়িদের কাছ থেকে প্রতিনিয়ত আদায় করা হবে।
জানা গেছে, রামু উপজেলার কচ্ছপিয়া ইউনিয়নের ফাক্রিকাটা এলাকার মোহাম্মদ জামালের ছেলে আব্দুর রহমান ছিলেন সিএনজি চালক। পরবর্তীতে তিনি সিএনজি গাড়ির লাইনম্যান হিসেবে কাজ করেন। সাম্প্রতিক সময়ে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে যান আবদুর রহমান। বর্তমানে তিনি অসংখ্য সিএনজি গাড়ির মালিক। রামুর প্রাণকেন্দ্র চৌমুহনী স্টেশনে চালু করেছেন নতুন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান।
রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণয় চাকমা জানিয়েছেন, সর্বোচ্চ দর প্রদানকারি হিসেবে আবদুর রহমান গর্জনিয়া বাজারের ইজারা পেয়েছেন। বাজারের ব্যবসায়িরা যেন হয়রানি না হন সে ব্যাপারে প্রশাসন সজাগ থাকবে।
এদিকে বাজারের ব্যবসায়ি এবং এলাকার সচেতন জনসাধারণের দাবি কোন মাদক ব্যবসায়ি যদি বাজারের ইজারা নেন, সেটা পুরো এলাকাবাসীর জন্য লজ্জা ও অপমানজনক। তাই মাদক ব্যবসায়িরা যেন সমাজে ঠাই না পায়। এ জন্য প্রশাসনকে কঠোর ভূমিকা পালন করতে হবে।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে অভিযুক্ত আবদুর রহমান জানান, তিনি মাদক ব্যবসায় কোনভাবেই জড়িত নন। তিনি নিয়ম অনুযায়িই বাজার ইজারা নিয়েছেন। একটি কুচক্রী মহল তার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *