পেকুয়ার রাজাখালীতে নির্যাতনের শিকার অসাহয় পরিবার এখনো ঘর ছাড়া!

পেকুয়া প্রতিনিধি :
দিন দুপুরে ঘরে ঢুকে স্বেচ্ছাসেবক লীগ সহসভাপতির পরিবারকে হামলা ও নির্যাতনের পর নির্যানকারীদের হিংস্রতা থেকে রক্ষা পাইনি নিষ্পাপ পশুপাখি। প্রতিহিংসা পরায়ন হয়ে মারধর করেছে গরু, ছাগলকে।পিটিয়ে মেরেছে একটি ছাগল চানা, গরুকে মারধর করে ভেঙ্গে দিয়েছে সিং,লুটপাট করে নিয়ে গেছে সৌর প্যানেল, ব্যাটারি সহ গুরুত্বপূর্ণ মালামাল।

গত (৮ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৫টার দিকে ঘটনাটি ঘটেছে রাজাখালী ইউপির ৯নং ওয়ার্ড দশের ঘোনা এলাকার মৃত্যু ঠান্ডা মিয়ার পুত্র আবদুর রহমানের বাড়িতে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,আব্দুর রহমানের বাড়ির পশ্চিম পাশে পুকুর পাড়ে আবদুর রহমানের পুত্র আবদুল খালক ও আবুল হোছাইনের পুত্র আবু বক্করের সাথে একটি কারেন্ট জাল ধোয়া নিয়ে কথা কাটা কাটি হল।আবু বক্কর গংয়েরা আবদুল খালেক ও তার ভাই রমজান আলীকে হামলা করতে চাইলে তাঁরা তাদের বাড়িতে আশ্রয় নেয়
এসময় একই এলাকার আবুল হোসেনের পুত্র আবু বক্কর (মনু) বদি আলমের পুত্র আবু বক্কর, আবুল হাসেমের এর পুত্র জয়নাল আবেদীন, আবু বক্কর এর পুত্র রিদওয়ান,আবু বক্কর (মনুর) স্ত্রী খালেদা বেগম, আবু বক্করের স্ত্রী ফরিদা বেগম সহ অজ্ঞাত ১০/১৫জন মিলে
তাদের বাড়ি ঘেরাও করে, লুট করে নিয়ে যায় ঘরের ছালে থাকা সৌর প্যানেল, ব্যাটারি, গরু ছাগলের উপর হামলা চালায়,হামলায় একটি ছাগল ছানার মৃত্যু এবং গরুর শিং ভেঙ্গে দেয়, দরজা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে আব্দুর রহমানের স্ত্রী সৈয়দা বেগম, রমজান আলী তাদের ওপর হামলা করলে
তারাও আত্মরক্ষার্থহামলার ভিতরে আবু বক্করের উপর হামলা করে। এ সময় উভয় পক্ষের লোকজন আহত হয় সৈয়দা বেগম ও আবু বক্করকে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
ভুক্তভোগী, রাজাখালী ৯ নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি  রমজান আলী  জানান,আবুবকর গংয়েরা আমাদেরকে বাহিরে হামলা করতে চাইলে আমরা তাদের ভয়ে আমাদের ঘরে ঢুকে পড়ি এবং দরজা বন্ধ করে দেয় তারা আমাদের ঘরের দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে আমাদের ওপর হামলা চালায় আমরা আত্মরক্ষার্থে প্রতিহত করি,তারা বারবার আমাদের উপর হামলা করে, গত তিন বছর আগে আমার ভাইয়ের উপর হামলা করে মাথা দু’টুকরা করে দেয়, আমার ভাই এখনো মানসিক ভারসাম্য হারা।আমরা এখনো নিরাপত্তা হীনতায় ভোগছি, প্রতি নিয়ত আমাদেরকে মেরেফেলার হুমকি দিচ্ছে, আমাদের ১লক্ষ ৫০হাজার টাকার মত মালামাল নষ্ট ও লুটকরেছে,
আমরা এই ব্যাপারে প্রশাসন সহ সবার সহযোগীতা কামনা করছি।
রাজাখালী ইউনিয় স্বেসাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হক (আজু) বলেন,রমজান আলী আমার ওয়ার্ড কমিটির সহসভাপতি তার পরিবার বারবার নির্যাতনের শিকার হচ্ছে, আমরা এই ব্যাপারে পার্টির উচ্চপর্যায় ও মাদার সংগঠনকে জানিয়েছি, অতি দ্রুত আমরা একটি সিদ্ধান্ত নিব।
রাজাখালী ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি গিয়াস
উদ্দীন বলেন, রমজান আলী আমাদের দলকরে, শুনেছি তার পরিবার বারবার নির্যাতনের শিকার হচ্ছে, আমরা দ্রতসময়ে একটা সিদ্ধান্ত নেব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *