পেকুয়ায় জমি এসংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে রাতের অন্ধকারে বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর, আহত ১

পেকুয়া প্রতিনিধি :

ধনিয়াকাঁটা শাহ আলমের বাড়িতে এই হামলা হয়,ভাঙচুর করেছে জানালার কাচ ও ব্যাথ রুমের পাইপ। পাথর নিক্ষেপ করা হয় বাড়ির চার পাশে।
নিক্ষেপ করা পাথরে ভরপুর হয়ে যায় বাড়ির চারপাশ ও ছাদ।
হামলাকারীদের ছুটা পাথরে পায়ে গুরতর জখম হয় তাঁর পুত্র (শাহ আলমের) ধনিয়াকাঁটা বাজারের ব্যবসায়ী মোহাম্মদ আলী। শাহ আলম একই এলাকার মৃত তৈয়ম গোলালের পুত্র।
ঘটনাটি ঘটেছে (১১ সেপ্টেম্বর) ৮টার দিকে পেকুয়া উপজেলার টইটং ইউনিয়নের ধনিয়াকাঁটা পূর্ব এলাকার
শাহ আলমের বাড়িতে।
হামলাকারীরা হলেন একই এলাকার মৃত্যু ছদ্দীক আহমদের পুত্র মোহাম্মদ আজু , আব্দুল রহিম, রেজাউল করিম, মোক্তার আহম্মদ, মাহামুদুল করিম,আবদুর মোহাম্মদ জুনাইদ, মোক্তার আহমদের পুত্র হুমায়ন মোরশেদ,মৃত্যু জসিম উদ্দীনের পুত্র কাইছার,জসিম উদ্দীনের পুত্র তৈহিদুল ইসলাম,আবদুর রহিমের পুত্র জোবাইর সহ অজ্ঞাত ৬/৭জন ছিল।

প্রত্যক্ষদর্শী জানায়, রাত ৮টার দিকে আবদুর রহিম গংয়ের নেতৃত্বে ধারালো অস্ত্র, লোহার রড়, লাঠিছুটা নিয়ে শাহ আলমের বাড়িতে হানা দেয়, তাদের ঘরের দরজা,জানালা বন্ধ থাকায়,ঘরে ঢুকতে না পেরে বাহির থেকে হামলা করে, জানালার কাচ ও জানালা, ব্যাথ রুমের পাইপ লাইন ভেঙ্গে নিয়ে যায়,এসময় স্থানীয় সাবেক এক ইউপি সদস্য নুরুল আবছার এসে তাদেরকে থামিয়ে দেয়।

আহত মোহাম্মদ আলীর ভাই জয়নাল আবেদীন জানান,
তারা আমাদের থেকে কোন জায়গা পাবে না, তারা জোর পূর্বকভাবে আমাদের জমি দখলের চেষ্টা করতেছে,আমরা মানুষ কম হওয়ায় তাঁরা বারবার সংঘবদ্ধভাবে আমাদের উপর হামলা করে। আমরা প্রশাসেন সহযোগীতা কামনা করছি।

অভিযুক্ত মোক্তার আহমদের পুত্র হুমায়ন মুর্শেদ জানান,তারা বিভিন্ন ভাবে আমাদের হুমকি দেওয়ায় তাদেরকে না পেয়ে ঘরে হামলা করেছি।

এই বিষয়ে স্থানীয় সাবেক ইউপি সদস্য নুরুল আবছার জানান,আমি রাতে চিল্লাচিল্লি শুনে ওদের বাড়ির সামনে গিয়ে দেখি শাহ আলমের দরজা বন্ধছিল, প্রতিপক্ষ তাদের ঘরে পাথর মারতেছে, আমি তাদের গিয়ে থামিয়ে দেয়।

এই বিষয়ে টইটং ইউনিয় পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান
সাহাব উদ্দীনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, তিনি ঘটনা স্থলে আছেন, পরে বিস্তারিত জানাবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *